লাখো মানুষের অশ্রুসিক্ত নয়নে বিদায় নিলেন বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ মোজাম্মেল

4

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির.সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার,বাগেরহাট:বাগেরহাট-৪ (মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা) আসনের সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন হাজারো মানুষের অশ্রুসিক্ত নয়নে শেষ বিদায় নিলেন। শুক্রবার বিকেলে মরহুমের জানাযায় বাগেরহাট সহ মোরেলগঞ্জ-শরনখোলার লাখো  মানুষ তাকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মরহুমের প্রথম নামাযের জানাযা সকালে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেখানে তাকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। দুপুরে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার যোগে মরহুমের মরদেহ বাগেরহাটে নিয়ে আসা হয়। বাগেরহাট শেখ হেলাল উদ্দিন ষ্টেডিয়ামে তার ২য় জানাযা পর বিকেল ৪ টার দিকে মোরেলগঞ্জ এসিলাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় জানাযা জন্য লাশবাহী গাড়ী পৌঁছে। এর আগে ¯কুল মাঠে হাজারো নারী-পুরুষ সমাবেত হয়। বিদায়ী শ্রদ্ধা জানাতে জানাযায় উপস্থিত হন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও বাগেরহাট,মোরেলগঞ্জ ও শরনখোলার আওয়ামীলীগ ,যুবলীগ ,ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মী। উপস্থিত ছিলেন মরহুম এমপির একমাত্র পুত্র খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মাহামুদ হাসান । সেখানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোজাম্মেল হোসেনকে রাষ্টীয় মর্যাদা সহ গার্ড অব অর্নার প্রদান করা হয়। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান, এডিশনাল এসপি মো. রিয়াজুল ইসলাম, থানা অফিসার ইন চার্জ কেএম আজিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পরে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন এমপির মরদেহ নিজ গ্রামের বাড়ি উপজেলার কচুবুনিয়া গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানের বিকেল ৫টার দিকে কচুবুনিয়া রহমাতিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের চতুর্থ জানাযা শেষে পারিবারিক করবস্থানে সমাহিত করা হয়।বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি.এ্যাডঃ আমিরুল আলম মিলন কেন্দ্রীয় সদস্য-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ,শেখ সারহান নাসের তন্ময় এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান টুকু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খান হাবিবুর রহমান,মোরেলগঞ্জ  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শাহী আলম বাচ্চু ,মোড়েলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র এ্যাডঃএস এম মনিরুল হক, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ,সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ শোক জানিয়েছেন।মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ সাইফুল ইসলাম কবির ।

বর্ষীয়ান এ রাজনীতিক ১৯৪০ সালের ১ আগস্ট বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার কচুবুনিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সকুল জীবনেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। ১৯৭৩ সালে উপজেলালাখো মানুষের অশ্রুসিক্ত নয়নে বিদায় নিলেন বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ মোজাম্মেল
শেখ সাইফুল ইসলাম কবির.সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার,বাগেরহাট:বাগেরহাট-৪ (মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা) আসনের সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন হাজারো মানুষের অশ্রুসিক্ত নয়নে শেষ বিদায় নিলেন। শুক্রবার বিকেলে মরহুমের জানাযায় বাগেরহাট সহ মোরেলগঞ্জ-শরনখোলার লাখো  মানুষ তাকে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মরহুমের প্রথম নামাযের জানাযা সকালে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেখানে তাকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। দুপুরে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার যোগে মরহুমের মরদেহ বাগেরহাটে নিয়ে আসা হয়। বাগেরহাট শেখ হেলাল উদ্দিন ষ্টেডিয়ামে তার ২য় জানাযা পর বিকেল ৪ টার দিকে মোরেলগঞ্জ এসিলাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় জানাযা জন্য লাশবাহী গাড়ী পৌঁছে। এর আগে ¯কুল মাঠে হাজারো নারী-পুরুষ সমাবেত হয়। বিদায়ী শ্রদ্ধা জানাতে জানাযায় উপস্থিত হন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও বাগেরহাট,মোরেলগঞ্জ ও শরনখোলার আওয়ামীলীগ ,যুবলীগ ,ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মী। উপস্থিত ছিলেন মরহুম এমপির একমাত্র পুত্র খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মাহামুদ হাসান । সেখানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোজাম্মেল হোসেনকে রাষ্টীয় মর্যাদা সহ গার্ড অব অর্নার প্রদান করা হয়। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান, এডিশনাল এসপি মো. রিয়াজুল ইসলাম, থানা অফিসার ইন চার্জ কেএম আজিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

পরে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন এমপির মরদেহ নিজ গ্রামের বাড়ি উপজেলার কচুবুনিয়া গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানের বিকেল ৫টার দিকে কচুবুনিয়া রহমাতিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের চতুর্থ জানাযা শেষে পারিবারিক করবস্থানে সমাহিত করা হয়।বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি.এ্যাডঃ আমিরুল আলম মিলন কেন্দ্রীয় সদস্য-বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ,শেখ সারহান নাসের তন্ময় এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান টুকু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খান হাবিবুর রহমান,মোরেলগঞ্জ  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শাহী আলম বাচ্চু ,মোড়েলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র এ্যাডঃএস এম মনিরুল হক, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ,সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ শোক জানিয়েছেন।মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ সাইফুল ইসলাম কবির ।

বর্ষীয়ান এ রাজনীতিক ১৯৪০ সালের ১ আগস্ট বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার কচুবুনিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সকুল জীবনেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। ১৯৭৩ সালে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ১৯৭৯ সাল ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। সেই থেকে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

 

১৯৯১ সালে বাগেরহাট-১ আসন থেকে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বাগেরহাট-৪ আসন থেকে ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ ও ২০১৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি মোট পাঁচ বারের সংসদ সদস্য। ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার গঠন করা মন্ত্রিসভায় সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান তিনি।এদিকে তার মৃত্যুতে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ১৯৭৯ সাল ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। সেই থেকে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। ১৯৯১ সালে বাগেরহাট-১ আসন থেকে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বাগেরহাট-৪ আসন থেকে ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ ও ২০১৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি মোট পাঁচ বারের সংসদ সদস্য। ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার গঠন করা মন্ত্রিসভায় সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান তিনি।এদিকে তার মৃত্যুতে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Comments are closed.