শর্ত দিয়ে পরিবহন-মালিক শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘট প্রত্যাহার

9

অনলাইন ডেস্ক :বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ধানমন্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসভবনে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।নতুন সড়ক পরিবহন আইন স্থগিতের দাবিতে পরিবহন-মালিক শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে নয়টা থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে এই বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুস্তম আলী খান, সদস্য সচিব তাজুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক মুকবুল আহম্মেদ, যুগ্ম সদস্য সচিব তালুকদার মো. মনির, মহাখালী বাস মালিক সমিতির সভাপতি সাদিকুর রহমান হিরু, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা, বিআরটিএর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল মালিক-শ্রমিক নেতাদের সব কথা শুনেছেন। সবাই নতুন পরিবহন আইন সংশোধন নিয়ে বিভিন্ন যুক্তি উপস্থাপন করেন। দুই পক্ষের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই চলেছে বৈঠকের আলাপচারিতা।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক সমিতির দাবিগুলো মেনে নেয়ার আশ্বাস দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

জানা গেছে, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে- আগামী জুন মাস পর্যন্ত হালকা লাইসেন্সে ভারী গা‌ড়ি চালাতে পারবে চালকরা। এছাড়াও নতুন আইনে জ‌রিমানার বিষয়ে নমনীয়তাও দেখাবে সরকার।

মঙ্গলবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ সংশোধনের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য পণ্য পরিবহন স্থগিত করে বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। এছাড়া দেশের বিভিন্ন জেলায় বাস চলাচল বন্ধ রেখে অবরোধ করছেন মালিক-শ্রমিকরা।

 

Comments are closed.