আগামী ৪ জুলাই,হজ ফ্লাইট শুরু ৫ আগস্ট শেষ

1

অনলাইন রিপোর্টার:আগামী ৪ জুলাই থেকে হজ ফ্লাইট শুরু হবে। পবিত্র হজের আগে শেষ হজ ফ্লাইট ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ছেড়ে যাবে ৫ আগস্ট। ফিরতি প্রথম হজ ফ্লাইট সৌদি আরবের জেদ্দা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসবে ১৭ আগস্ট। হজ ফ্লাইট শেষ হবে ১৪ সেপ্টেম্বর। বেসরকারি হজ এজেন্সি মালিকদের সংগঠন হাব আজ শনিবার এ ঘোষণা দেয়। এর আগে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয় হজ ফ্লাইটের শিডিউল ঘোষণা করে। বিমান মন্ত্রণালয় এবার হজ যাত্রীদের জন্য ভাড়া বাবদ ১০ হাজার টাকা কমানোর ঘোষণা দেয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এ বছর হজে যাবেন এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। এর মধ্যে ৬৩ হাজার ৫৯৯ জনকে পরিবহন করবে বিমান। অবশিষ্ট হজযাত্রীদের পরিবহন করবে সৌদিয়া এয়ারলাইনস। বিমান মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ বছরই প্রথম ঢাকা থেকে মদিনায় ১১টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। এ ছাড়া চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দায় ১০টি, সিলেট থেকে জেদ্দায় ৩টি, চট্টগ্রাম থেকে মদিনায় ৭টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। বাকি ১২৬টি ফ্লাইট ঢাকা থেকে জেদ্দায় নিয়ে যাবে হজ যাত্রীদের।

ওমরা যাত্রীদের নিয়ে হাবের উদ্বেগ ওমরা যাত্রীদের বিমানভাড়া দ্বিগুণ বৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন হাবের নেতারা। আজ শনিবার ঢাকার একটি মিলনায়তেন অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম লিখিত বক্তব্যে বলেন, সৌদি সরকার ওমরা ভিসা সহজ করায় চলতি বছর ওমরাহ যাত্রীর সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এতে এয়ারলাইনসগুলোতে সিটের সংকট তৈরি হয়েছে। এ সুযোগে এয়ারলাইনসগুলো বিমান ভাড়া প্রায় দ্বিগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে। অন্যান্য বছর যেখানে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা সরাসরি বিমানভাড়া ছিল ৫০ হাজার টাকা বর্তমানে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা ওমরা যাত্রীদের বিমানভাড়া ৮০-৮৫ হাজার টাকা করা হয়েছে। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েও টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না।

হাবের সভাপতি লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, বর্তমানে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা অভিবাসীদের বিমান ভাড়া ৬০ থেকে ৬৫ হাজার টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। আগে এ ভাড়ার হার ছিল ২২ থেকে ২৪ হাজার টাকা। স্বল্পমেয়াদি সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের যেসব রুটে যাত্রী সংখ্যা কম ও অলাভজনক সে সব রুটের ফ্লাইটের সংখ্যা কমিয়ে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা, ঢাকা-রিয়াদ-ঢাকাসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী অন্যান্য গন্তব্যে ফ্লাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি করার দাবি জানান শাহাদাত হোসাইন তসলিম।

Comments are closed.