বঙ্গবন্ধু সিনেমা দিয়ে ফিরছেন দীঘি

2

বিনোদন ডেস্ক:
‘বাবা জানো, আমাদের একটা ময়না পাখি আছে না, সে আজকে আমার নাম ধরে ডেকেছে, আর এ কথাটা না মা কিছুতেই বিশ্বাস করছে না, আমি কী তাহলে ভুল শুনেছি, কেমন লাগে বলো তো’ মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোনের এই একটি সংলাপের মাধ্যমেই সবার প্রিয়মুখ হয়ে ওঠেছিল শিশুশিল্পী দীঘি। তার পুরো নাম প্রার্থনা ফারদিন দীঘি।

চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘কাবুলিওয়ালা’ দীঘি অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র। প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেয় দিঘী। কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর বেশ লম্বা সময় ক্যামেরার সামনে দেখা যায়নি দিঘীকে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিকে নির্মিত হতে যাচ্ছে সিনেমা। বাংলাদেশ ও ভারত সরকার যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধুর জীবনীনির্ভর এই সিনেমা নির্মাণ করছেন বায়োপিক মাস্টার খ্যাত নির্মাতা মুম্বাইয়ের শ্যাম বেনেগাল। এক গেজেটের মাধ্যমে সিনেমাটির অভিনেতা অভিনেত্রীদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

এই তালিকা থেকে জানা গেছে, এই ছবিতে রেনুর ছোট বেলার চরিত্রে অভিনয় করবেন দীঘি। তবে এই বিষয়ে জানতে দীঘির সাথে যোগাযোগ করলে তাঁকে পাওয়া যায়নি।

আগামী ১৭ মার্চ শুরু হবে এই সিনেমার শুটিং। মুজিববর্ষেই অর্থাৎ ২০২১ সালের ১৭ মার্চের আগেই শেষ হবে বায়োপিকের নির্মাণকাজ। বাংলাদেশ ও ভারতে মুক্তি দেয়া হবে ৪০ কোটি টাকা বাজেটে নির্মিত ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট ব্যাপ্তির এ সিনেমা।

উল্লেখ্য, দীঘি চলচ্চিত্র পরিবারের সন্তান। তার বাবা সুব্রত বড়ুয়া চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং মা দোযেল চলচ্চিত্র নায়িকা। ২০১১ সালে দিঘীর মা দোয়েল মারা যান। মায়ের স্বপ্ন ছিল দিঘী ডাক্তার হবে, সেই স্বপ্ন পূরনের লক্ষ্যে চলচ্চিত্র থেকে কিছুটা দূরে গিয়ে পড়াশোনা নিয়েই ব্যস্ত আছেন দিঘী। ‘কাবুলিওয়ালা’, ‘চাচ্চু আমার চাচ্চু’, ‘এক টাকার বউ’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পায় দীঘি।

Comments are closed.