পটুয়াখালীতে কমে যাচ্ছে শিশু শিক্ষার্থী, সমাপনী পরীক্ষায় অনুপস্থিত ২০৩৩ জন

6

সুনান বিন মাহাবুব(পটুয়াখালী)

পটুয়াখালী জেলায় পিইসি ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষার প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২ হাজার ৩৩ জন। পটুয়াখালী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে জানা গেছে, এ বছর পটুয়াখালী জেলার ৮টি উপজেলায় ১০২টি কেন্দ্রে প্রাথমিক শিক্ষা ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল মোট ৩৫,৭৪০ জন কিন্তু পরীক্ষার প্রথম দিনে অংশ গ্রহন করে ৩৩,৭০৭ জন এবং ঝরে গেছে ২,০৩৩ জন শিক্ষার্থী।
পটুয়াখালী সদর উপজেলায় পিইসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে ৪,৯৮৩ জন। সদর উপজেলায় অনুপস্থিত ১৮২ জন। কলাপাড়ায় অংশগ্রহন করে ৪,৪০১ জন, অনুপস্থিত ১৪৮ জন। গলাচিপায় অংশ নেয় ৫,১১২ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ১৫৯ জন। দশমিনায় অংশগ্রহন করে ২,৫৩৫ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৮১ জন। বাউফলে অংশগ্রহন করে ৫,৭৫৫জন, অনুপস্থিত রয়েছে ১৪৪ জন। মির্জাগঞ্জে অংশ নেয় ২,১৪১ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৫৪ জন। দুমকিতে অংশনেয় ১,০৬১ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৩৩ জন এবং রাঙ্গাবালী উপজেলায় ২,১৮৪ জনের মধ্যে অনুপস্থিত রয়েছে ৭৫ জন।
ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় সদর উপজেলায় অংশ গ্রহন করে ১২১৯ জন এবং অনুপস্থিত রয়েছে ৩২২ জন। কলাপাড়ায় অংশগ্রহন করে ৮৬৬ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ১৭২ জন। গলাচিপায় অংশগ্রহন করে ৯০৫ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ১৭৫ জন। দশমিনায় অংশগ্রহন করে ৩০৭ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৪৭ জন। বাউফলে অংশগ্রহন করে ১১০০ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ২৯৪ জন। মির্জাগঞ্জে অংশগ্রহন করে ২৮৬ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৪৯ জন দুমকিতে অংশগ্রহন করে ৫৩৯ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৬৫ জন এবং রাঙ্গাবালী উপজেলায় অংশগ্রহন করে ৩১৩ জন, অনুপস্থিত রয়েছে ৩৩ জন।
এ ব্যাপারে শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ ছাইদুজ্জামান জানান, ইবতেদায়ীতে অনুপস্থিতির হার বেশী। উপস্থিত না হওয়ার বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারগণকে অনুসন্ধান করে রিপোর্ট পেশ করার জন্য বলা হয়েছে।

Comments are closed.