বিদেশ নিয়ে স্ত্রীকে দালালের কাছ বিক্রি

4

বন্দর প্রতিনিধি:
উচ্চ বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে এবার নিজের স্ত্রীকে বিদেশে নিয়ে দালালদের কাছ বিক্রি করে কৌশলে পালিয়ে দেশে ফিরে আসার অভিযোগ উঠেছে প্রতারক স্বামী মঞ্জু মিয়ার বিরুদ্ধে। ভূক্তভোগী গৃহবধূ রাবেয়া বেগম দালালদের কাছ থেকে প্রান রক্ষা পেয়ে গত ৬ অক্টবর দেশে ফিরে আসে। এ ব্যাপারে নির্যাতিত গৃহবধূ রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে গত বুধবার রাতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে বন্দর থানায় জিডি এন্ট্রি করেন। যার জিডি নং- ৩৯৬ তাং- ৯-১০-১৯ইং।জিডি সূত্রে জানান, গত ২ বছর পূর্বে বন্দর থানার নূরপুর এলাকার মৃত আব্দুল মালেক মিয়ার ছেলে মঞ্জু মিয়ার সাথে একই থানার পুরান বন্দর চৌধুরীবাড়ীস্থ কলাবাগ এলাকার মোহাম্মদ আলী মিয়ার মেয়ে রাবেয়া বেগমের সাথে ৫ লাখ টাকা কাবিন মূলে ইমলামি শরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের পর কয়েক মাস পর মঞ্জু মিয়া জিবীকার তাগিদে লেবাননে পাড়ি জমায়। বিয়ের ৬ মাস পর স্বাামী মঞ্জু মিয়া তার স্ত্রী রাবেয়াকে লেবাননে নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে গৃহবধূর পিতা মোহাম্মদ আলী আরো জানান, প্রতারক স্বামী মঞ্জু মিয়া আমার মেয়ে রাবেয়াকে দিয়ে সেদেশে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকতে বাধ্য করে। এক পর্যায়ে গত ২০১৮ ইং সালের ২১ শে মে ওই দেশের দালালদের কাছে আমার মেয়ে বিক্রি করে দেশে ফিরে পুনরায় আরো একটি বিয়ে করে । পরে গৃহবধূ রাবেয়া বেগম দালালদের কবল থেকে মুক্তি পেয়ে৩ ২০১৯ ইং সালের গত ৬ অক্টবর দেশে ফিরে স্বামীর বাড়ীতে উঠে। এবং এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে ওই সময় প্রতারক মঞ্জু ও তার বোন আমেলা এবং ২য় স্ত্রী রুনা তাকে বেদম মারপিট করে এবং প্রান নাশের হুমকি প্রদান করে। বর্তমানে নির্যাতিত গৃহবধূ চরম নিরাপত্তহিনতায় ভূগছে বলে তার পিতা জানায়।

Comments are closed.