বন্দরে ৩ স্কুল শিক্ষার্থীকে কুপিয়েছে একই স্কুলের অপর শিক্ষার্থীরা

বন্দরে ৩ স্কুল শিক্ষার্থীকে কুপিয়েছে একই স্কুলের অপর শিক্ষার্থীরা

1

বন্দর প্রতিনিধি:
বন্দরে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম করেছে একই স্কুলের অপর শিক্ষার্থীরা । রবিবার বিকালে কাশিপুর রিয়াজুল উলুম মাদরাসার সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থীরা হলো, সিয়াম, বিজয় ও শিপন মিয়া। আহত শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, বন্দর উপজেলা মদনপুরস্থ রহমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীর ছাত্র ছোটবাগ এলাকার নাজিমউদ্দিন নাজুর ছেলে সিয়াম, একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে বিজয় ও চাঁনপুর এলাকার মো. জুলহাস মিয়ার ছেলে শিপন মিয়ার সঙ্গে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে একই এলাকার অপর স্কুল ছাত্র বখাটে রোহান, লিথিল, অনিক মিয়ার পূর্ব শত্রুতা চলছিল। এর জের ধরে রবিবার বিকালে স্কুল ছুটি শেষে সিয়াম, বিজয় ও শিপন মিয়া বাড়িতে যাচ্ছিল। এসময় কাশিপুর রিয়াজুল উলুম মাদরাসার সামনে তার পৌঁছালে বখাটে রোহান, লিথিল, অনিক মিয়ার নেতৃত্বে মিদুল, আলম, নাফিজ, সিয়াম, ফাহাদ, আসিফ, রামিম ও জুম্মনসহ আরো ৫-৬ জন মিলে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে ওই ৩ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। আহত ৩ শিক্ষার্থীর আতœচিৎকারে গ্রামবাসী ছুটে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। এসময় সিয়াম, বিজয় ও শিপন মিয়াকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিজয় ও শিপনকে অন্যত্রে পাঠিয়ে দেয়। স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সদস্য, ইকবাল ভূঁইয়া জানান, ঘটনাটি ঘটেছে স্কুলের বাহিরে। কেন এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে আমার জানা নেই। তবে আহত ছাত্রদের চিকিৎসার খরচ বহন করা হবে। এ ঘটনায় আমরা সুষ্ঠু বিচার করবো ।

এ ব্যাপারে বন্দর থানা অফিসার ইনর্চাজ রফিকুল ইসলামের সাথে আলাপ কালে তিনি জানান, ছাত্রদের সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ দায়ের করা হলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Comments are closed.