বাগেরহাটে শরণখোলায় মোবাইলে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে একজনকে হত্যা

14

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির.সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার:বাগেরহাট:বাগেরহাটের শরণখোলায় মোবাইলে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে আমিনুল ইসলাম বেল্লাল (৩২) নামের এক ব্যাক্তিকেকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে শরণখোলা উপজেলার বাংলাবাজার এলাকায় বেল্লালকে মারপিটের ঘটনা ঘটে । ১০ ঘন্টা পর হাসপাতালে নেওয়ার পথে শনিবার ভোরে বেল্লালের মৃত্যু হয় । নিহত আমিনুল ইসলাম বেল্লাল শরণখোলার রায়েন্দা ইউনিয়নের মালিয়া গ্রামের মো. সোহরাব হোসেন আকনের ছেলে।

নিহত বেল্লালের পিতা সোহরাব হোসেন জানান, শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে বাংলাবাজারে লাবন হাওলাদার এর ক্রাম খেলা ঘর থেকে আমার ছেলেকে টেনে বের করে প্রতিবেশী সোবাহান গাজীর ছেলে আসাদুল গাজী (১৮) ও পান্না গাজীর ছেলে ইসাহাক গাজী (১৮)। পরে ওই বাজারের কালাম ফরাজীর চায়ের দোকানের সামনে আসাদুল বেল্লালকে ধরে রাখে এবং ইসাহাক কিল ঘুষি দিতে থাকে । রাতে ইসাহাকের বাবা পান্না গাজী আমাকে ডেকে ব্যাথার ওষুধ দিলে তা খাওয়ালে বেল্লালের শরিরের ব্যাথা কমে । শনিবার ভোরে ঘরে এসে দেখি বেল্লাল নাক দিয়ে জোরে জোরে শ্বাস নেয় ও হাতপা লাফাতে থাকে। তখন বেল্লালকে হাসপাতালে পাঠাই। হাসপাতালে নেয়ার পথেই বেল্লালের মৃত্যু হয় ।
শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার বিশ্বজিৎ মজুমদার জানান, নিহত বেল্লালের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে ।
শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ দিলিপ কুমার সরকার শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় এই প্রতিবেদককে জানান, বৃদ্ধের আপত্তিকর ছবি তুলে ফেজবুকে ছাড়াকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাতে বেল্লালকে মারধর করে আসাদুল ও ইসাহাক । শনিবার ভোরে হাসপাতালে নেয়ার পথে বেল্লালের মৃত্যু হয়। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যহত আছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

Comments are closed.