রৌমারীতে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উৎযাপন

34

শফিকুল ইসলাম, ব্যুরো অফিস রৌমারী
১০ জানুয়ারি ঢাকায় লাখ লাখ লোকের সমাবেশে বঙ্গবন্ধু ঘোষনা করেন,পাকিস্তানের সঙ্গে আর কোন সম্পর্ক নয়। বাংলাদেশ আজ স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র। তিনি আরও যোগ করেন,আজ আমি বলতে চাই, ভুট্রো সাহেব , আপনারা সুখে থাকুন । আপনাদের সঙ্গে আর না। মরে যাব তবু বাঙালি আর স্বাধীনতা হারাতে পারে না। আমি আপনাদের মঙ্গল কামনা করি আমরা স্বাধীন, এটা মেনে ।
কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলায় সারা দেশের ন্যায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে অবহেলায় পালিত হয়েছে। ১১ জানুয়ারী (শনিবার) বেলা ১১টার দিকে দিবসটি পালিত হয়। দিবসে আওয়ামীলীগ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীর উপস্থিতি ছিল খুবই কম।
বেলা ১১টায় বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে উপজেলা চত্বর থেকে একটি আনন্দ র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। র‌্যালি ও আলোচনা সভায় উপজেলা শাখার আওয়ামীলীগের সকল অঙ্গসংগঠরেন নেতাকর্মীদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। অন্যদের মধ্যে র‌্যালিতে অংশ গ্রহন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আকতার স্মৃতি ও ভাইস চেয়ারম্যান মোজাফ্ফর হোসেন, রৌমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিনু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হারুনর রশিদ হারুন, উপজেলা আওয়ামীরীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ছাত্রলীগের নেতা মাইদুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের সরকার, ডিপুটি কমান্ডার শাহার আলী ও আজিজুর রহমান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নাজমুল ইসলাম, সহকারি পুলিশ সুপার (রৌমারী সার্কেল) মাহফুজুর রহমান, রৌমারী থানার (ওসি) তদন্ত মোন্তাছের বিল্লাহ, রৌমারী সরকারি ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আঞ্জুমান আরা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আজিজুর রহমান, রৌমারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামিমা আকতার শিউলী, রৌমারী ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের দায়িত্বরত লিডার কুদ্দুস মিয়া ও শিক্ষার্থীরা।

Comments are closed.