দুমকির বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন ইউএনও রায়হান আহমেদ

36

মো: সাইফুল ইসলাম দুমকি (পটুয়াখালী)সংবাদদাতাঃ পটুয়াখালীর দুমকিতে প্রতিবন্ধীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে গড়ে উঠেছেন জলিশা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয়। সোমবার বেলা ২ ঘটিকায় জলিশা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন দুমকি উপজেলার সুযোগ্য নির্বাহী অফিসার রায়হান আহমেদ। পরে বিদ্যালয়ের অডিটরিয়ামে জলিশা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয় স্থাপন ও আর্জিত সাফাল্য শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করেন বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি পবিপ্রবির সাবেক ডিপুটি রেজিষ্ট্রার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল হাকিম খান’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুমকি উপজেলার সুযোগ্য নির্বাহী অফিসার রায়হান আহমেদ। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. হুমায়ুন কবি বাদশা, জমিদাতা সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভার আগে প্রধান অতিথি বিদ্যালয়ের সামনে বৃক্ষ রোপণ ও পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন ।

জানা যায়, ২০১৫ সালে প্রায় ২০জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে ভাড়া ঘরে বিদ্যালয়টির যাত্রা শুরু হয়। পরে স্থানীয় সৈয়দ আনোয়ার হোসেন ৬০শতাংশ জমি দান করেন। ওই জমির উপর নির্মান করা হয় বিদ্যালয়ের ভবন। বর্তমানে আরেকটি ভবনের নির্মান কাজ চলছে। উপজেলা শহরের ৫টি ইউনিয়ন থেকে প্রায় দেড় শতাধিক প্রতিবন্ধীদের ১৫জন শিক্ষক দ্বারা এ বিদ্যালয় পাঠদান চলছে। শিক্ষার্থীদের বাড়ি থেকে প্রতিষ্ঠানে আনা-নেয়ার জন্য রয়েছে ৪টি ভ্যান। শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার জন্য থেরাপির ব্যবস্থাও রয়েছে । ঐক্যবদ্ধ সেবা সংস্থার অর্থায়নে ও পরিচালনায় চলছে বিদ্যালয়টি।

শিক্ষার্থীদের কোন বেতন দিতে হয়না আর শিক্ষকরাও চাকুরী করছেন বিনা বেতনে। গত সারে ৩বছরে সরকারী কোন সহযোগিতা পাননি বিদ্যালয়টি। প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি পবিপ্রবির সাবেক ডিপুটি রেজিষ্ট্রার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল হাকিম খান বলেন, সরকারী কোন সহযোগিতা ছাড়াই এপর্যন্ত বিদ্যালয়ের পিছনে প্রায় ২৫ লক্ষাধিক টাকা ব্যয় হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে লেখাপড়াসহ তাদেরকে নাস্তা দেয়ার খরচ বহন করতে হচ্ছে আমাদের। যা খুবই কষ্টসাধ্য। তবুও আমরা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। আলোচনা সভায় তিনি সরকারী সহযোগীতাসহ প্রধান অতিথির দৃষ্টি কামনা করেন ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান আহমেদ তার বক্তাব্যে বলেন ব্যক্তিগত ভাবে আমার পক্ষথেকে এবং নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করা হবে।

Comments are closed.