ভোটের স্থান কোথায় হবে সেটা নির্ধারণ করার এখতিয়ার নির্বাচন কমিশনের- শামীম ওসমান

12

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ এ.কে.এম শামীম ওসমান বলেন, ভোটের স্থান কোথায় হবে সেটা নির্ধারণ করার সম্পূর্ণ এখতিয়ার রয়েছে নির্বাচন কমিশনের। এমন কর্মকান্ড অনেক দেখেছি, মুখে বলে নির্বাচন বয়কট করেছে কিন্তু না পরবর্তীতে দেখা যাচ্ছে ঠিকই নির্বাচনে অংশগ্রহন করছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামীপন্থী প্যানেল সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানাতে আদালতপাড়ায় এসে গণমাধ্যমকর্মীদের একথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি নির্বাচনের আগের দিন নির্বাচন বয়কট করেছে, সেটা তারা করতেই পারে। কারন তাদের বিশ^াস ভোটার এবং গণতন্ত্রের উপর নেই। এ নির্বাচন কমিশনারের অধীনে পরপর ৩ বার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তখন কিন্তু কেউ নির্বাচন কমিশনারের ব্যাপারে কিছুই বলেনি। মনে হচ্ছে বিএনপি নির্বাচন বয়কট করেনি, ভোটাররাই তাদেরকে বয়কট করেছে।

এসময় তিনি ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন, নারায়ণগঞ্জের একটি টিম দিয়ে ঢাকায় সমীক্ষা করানো হয়েছিলো। সেই সমীক্ষার প্রতিবেদন অনুসারে দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনে শেখ ফজলে নূর তাপস ৬৮-৭২ শতাংশ এবং উত্তরে আতিকুল ইসলাম ৬৪-৬৮ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হবে। যদি নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করা না হয়। আমরা শুনতে পেয়েছি, নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিরা সংঘবদ্ধ হচ্ছে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এড. ওয়াজেদ আলী খোকন, এড. তারাজ উদ্দিন, এড. সামসুল ইলাম ভূইয়া, এড. নূরজাহান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, বর্তমান সভাপতি এড. মোঃ মোহসীন মিয়া, সাধারণ সম্পাদক এড. মাহমুবুবুর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. বিদ্যুত কুমার সাহা, সহ-সভাপতি এড. মোঃ তাজুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. বরুন কুমার দে, কোষাধ্যক্ষ এড. মনিরুজ্জামান কাজল, আপ্যায়ন সম্পাদক এড. আবুল বাশার রুবেল, লাইব্রেরী সম্পাদক এড. মাহমুদুল হক মমিন, ক্রীড়া সম্পাদক এড. মোঃ রাশেদ ভূইয়া, সাহিত্য সম্পাদক এড. ফাহমিদা আক্তার সিমি, সমাজসেবা সম্পাদক এড. হাসিব উল হাসান রনি, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এড. নুসরাত জাহান তানিয়া, সদস্য এড. কামরুল হাসান, এড. দেলোয়ার হোসেন সুজন প্রধান, এড. আসাদুল্লাহ সাগর, এড. আজিম ভূইয়া, এড. কামরুন নেছা সুবর্না সহ অন্যান্য আইনজীবীগণ।

Comments are closed.